গরিব মসলমানের সংখ্যা বাড়লে আজমলের ভােটব্যাঙ্ক স্ফীত হবে , বললেন আমিনুল ।

আজমলের প্রয়ােজন  মুসলমানের ভােট । ফলে মুসলমানের সন্তান সংখ্যা বৃদ্ধি হােক তিনি চাইবেন । এতে ভােটব্যাঙ্ক স্ফীত হবে । মঙ্গলবার শিলচর দূরদর্শনের

silchar bangla news

মুখােমুখি অনুষ্ঠানে এভাবেই বললেন অসম বিধানসভার উপাধ্যক্ষ আমিনুল হক লস্কর । তিনি আরও বলেন , আজমলের ভােটব্যাঙ্কে দরিদ্র মুসলমানের সংখ্যা বৃদ্ধি হবে ।

তারা ‘ গরু ছাগলের মত সন্তানের জন্ম । দেবে । আমিনুলের কথায় , ভােটব্যাঙ্কের স্বার্থেই আজমল এসব কথা বলছেন । অথচ তার নিজের সন্তান সংখ্যা তাে বেশি নয় । এমনকী তার ছেলেদের সন্তানাদি বেশি নয় । তাহলে মুসলমানের জন্ম নিয়ন্ত্রণ করা উচিত নয় কথাটি তার এবং তার পরিবারের ক্ষেত্রে প্রযােজ্য নয় কেন , বলেন - উপাধ্যক্ষ আমিনুল । আসলে সাধারণ গরিবগুর্বো মুসলমানের

সংখ্যা যত বাড়বে আজমলের সুবিধে হবে । এই রাজনীতিই তাে তিনি করে আসছেন , বলেন আমিনুল । আজমলের মন্তব্যে ইতিমধ্যেই ঝড় উঠেছে । এই বিতর্কের রেশ ধরেই একথাগুলি বলেন উপাধ্যক্ষ ।

উল্লেখ্য , বিজেপির প্রবীণ নেতা সুব্রহ্মনিয়ম স্বামীও বলেছেন আজমলের স্ত্রীও কি তার এই মতবাদের সঙ্গে  একমত ? শিলচর দুরদর্শনের মুখােমুখি অনুষ্ঠানে উপাধ্যক্ষ আমিনুল হক লস্করের সাক্ষাৎকারটি নেন অধ্যাপক জয়দীপ বিশ্বাস ।

উল্লেখ্য , অসম সরকার ২০২১ থেকে একটি নতুন আইন চালু করবে রাজ্যে । তাতে বলা হয়েছে , দু ’ টির বেশি সন্তান থাকলে সরকারি চাকরি পাওয়া যাবে না । রবিবার এই আইনের বিরুদ্ধে মুখ খােলেন এআইইউডিএফ সুপ্রিমাে বদরুদ্দিন আজমল ।

তিনি বলেন , মুসলিমদের চাকরি থেকে বঞ্চিত করে রাখতেই এই আইন আনা হচ্ছে । দুই সন্তানের নীতিতে বিশ্বাস করে না ইসলাম । এভাবে পৃথিবীর আলাে দেখা থেকে কাউকে রােখা যায় না । তিনি আরও বলেন , মুসলমানরা যত ইচ্ছা সন্তানের জন্ম দিন । তাদের শিক্ষিত করে তুলুন ।

যাতে নিজেরাই নিজেদের কর্মসংস্থান করতে পারে । এমনিতেই সরকার মুসলমানদের সরকারি চাকরি দেয় না । আমাদের কোনও প্রত্যাশাও নেই ।

Post a Comment

0 Comments