তারাপুর চরি কাণ্ডে ধৃত তিন ৫ দিনের পুলিশ রিমান্ডে

দীপের সূত্রে ধৃত ‘ পঞ্চরত্ন ’ চোরের দলের আরও তিনজন , পলাতক এক

তারাপুর চরি কাণ্ডে ধৃত তিন
তারাপুর চরি কাণ্ডে ধৃত তিন

বুধবার তারাপুর অসমিয়া বস্তিতে ধৃত চোর দীপ নাগ - এর সূত্রে ধরা পড়ল আরল তিনজন । ধৃত অন্য তিনজন হল তারাপুর শিববাড়ি রােডের অর্থ চক্রবর্তী , ইএন্ডডি কলােনির রাজা দেবনাথ এবং অর্ঘর বাড়ির বাসিন্দা অমর নাথ

রাজা ও অমর । পেশায় অটোচালক , অমরের বাড়ি করিমগঞ্জ জেলার রাতাবড়িতে , তবে বেশ কিছুদিন ধরে রয়েছে অর্ঘের শিববাড়ি রােডের বাড়িতে । পুলিশ সূত্রের খবর অনুযায়ী ,

দীপ , অর্থ , রাজা ও অমর সহবাপন নামে পাচ যুবক মিলে গড়ে তােলেছে চোরের দল । সাম্প্রতিককালে তারাপুর , এলাকায় ঘটে যাওয়া সবকটি চুরির ঘটনাই এই ‘ পঞ্চরত্ন ’ - র দলের কাজ । বাপনের বাড়ি মাসিমপুরের দিকে , সে বর্তমানে পলাতক ।

বুধবার রাতে অসমিয়াবস্তির লােকেরা দীপকে পাকড়াও  করার হাঙ্গামা শেষে পুলিশ তাকে সমঝে নিয়ে যায় ।

দীপকে জিজ্ঞাসাবাদের সূত্রে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ গ্রেফতার করে অর্থকে । গ্রেফতারির পরদীপ ও অর্ঘকে আদালতে পেশ করা হয় । আদালতের অনুমতিতে দু ' জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পাঁচদিনের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে পুলিশ ।

রিমান্ডে । দীপ ও অর্ঘকে নিয়ে আদালতের প্রক্রিয়া চলতে থাকার মধ্যেই গ্রেফতার করায় হয় রাজা এবং অমরকে । এই দু ’ জনকে আগামীকাল শুক্রবার ।

আদালতে পেশ করার কথা । ন পুলিশের এক সূত্র জানান , নতুনবাজারের বাসিন্দা দীপ নাগ তারাপুরে ঘরভাড়া নিয়ে চৌর্যবৃত্তি চালাত । আগে সে অসমিয়াবস্তিতে এক দোকানে কাজ করত । সেসময়ই পরিচয় অর্ঘদের সঙ্গে , এরপর পাঁচজন মিলে গড়ে তােলে চোরচক্র ।

চোরচক্র গড়ে তােলার পর দীপ জড়িয়ে পড়ে অন্য এক ঝামেলায় , এতে ছেড়ে দেয় দোকানের কাজ । বর্তমানে তার পেশা বলতে শুধুই চৌর্যবৃত্তি । সূত্রটি আরও জানান , গত শুক্রবার অসমিয়াবস্তিতে পুলক বণিক নামে এক ব্যবসায়ীর মােবাইলের দোকানে চুরির পর একটি ব্যাগে ভরে সব মােবাইল নিয়ে যাওয়া হয় অর্ঘের বাড়িতে ।

চুরির সময় দোকানের ভেতর ঢুকেছিল শুধু দীপ । অর্থ , রাজা , অমর ও বাপন ছিল বাইরে । চুরির পর একটি ব্যাগে ভরে প্রচুর সংখ্যক মােবাইল নিয়ে যাওয়া হয় অর্যের বাড়িতে । চুরির সফলতার ’ খুশীতে সে ' রাতে ভাের পর্যন্ত পাঁচজনের পার্টি হয় অর্ঘের বাড়িতে । দীপকে জিজ্ঞাসাবাদের ।

পর এদিন অর্ঘের বাড়িতে অভিযান চালালে পাওয়া যায় চুরির পর মােবাইল নিয়ে যাওয়ার জন্য ব্যবহৃত ব্যাগ , তবে সেই ব্যাগে পাওয়া যায়নি কোনও মােবাইল । পুলিশের সূত্রটি বলেন - খুব সম্ভবত বুধবার রাতে দীপ ধরা পড়ার খবর ।

পেয়ে অর্ঘ মােবাইলগুলাে সরিয়ে নেয় অন্যত্র । মােবাইলের সন্ধান পেতে বর্তমানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চালানাে হচ্ছে । সেই সঙ্গে চত্রের পঞ্চম সদস্য বাপনের খোজেও চলছে তল্লাশী । এদিকে অর্ঘের ঘনিষ্ঠ সূত্রে দাবি করা হয়েছে , সে মােটেই চুরির সঙ্গে জড়িত ।

নয় । পুরানাে শত্রুতা মেটাতে দীপ নিজে ধরা পড়ার পর পুলিশের কাছে বলে । দিয়েছে অর্ঘের নাম । যদিও পুলিশের দাবি , বলতে গেলে অর্ঘহ পাঁচ চোরের । দলের প্রধান । সেই উদ্যোগ নিয়ে গড়ে তুলেছে এই দল ।

Post a Comment

0 Comments